দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

BREAKING NEWS

‘ভুয়া পোস্টে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র প্রমাণের চেষ্টা ছিল আশিষের’

0

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কুমিল্লার ঘটনাকে কেন্দ্র করে মিথ্যা তথ্য প্রচার ও উস্কানিমূলক পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তার নাম আশিষ মল্লিক। তিনি একটি ফেসবুক পেজের এডমিন।

মঙ্গলবার রাজধানীর বনানী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে এলিট ফোর্স র‌্যাব। বুধবার বিকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আব্দুল্লাহ আল মোমেন।

র‌্যাব অধিনায়ক জানান, একটি ফেসবুক পেজের এডমিন আশিষ মল্লিক পার্শ্ববর্তী দেশে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন নৃশংস ঘটনার ভিডিও আপলোড করে জনমনে ভয়-ভীতি সৃষ্টিসহ উস্কানি দিচ্ছিলেন। অভিযুক্ত আশিষ মল্লিক প্রতিটি পোস্ট ‘হ্যাশট্যাগ’ করে বাংলাদেশকে একটি সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিলেন।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পেজ খুলে মিথ্যা অপপ্রচার করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট ও জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর বনানী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। আশিষ সাইবার অপরাধের সঙ্গে তার সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেছেন। তার গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামে। তিনি ঢাকা কলেজ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করে একটি কোচিং সেন্টার পরিচালনা করে আসছিলেন।

র‌্যাব জানায়, গত ১৬ অক্টোবর একটি ফেসবুক পেজ খুলে ওই পেজে ও তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি থেকে বিভিন্ন উস্কানিমূলক বক্তব্য পোস্ট করে আসছিলেন। নিজে ওই পেজের এডমিন ও তার সমমনা আরও কয়েকজন ব্যক্তিকে এডমিন হিসেবে নিযুক্ত করেন। খুব দ্রুতই পেজের সদস্য ও ফলোয়ার কয়েক হাজার ছাড়িয়ে যায়।

এই ফেসবুক পেজ থেকে কুমিল্লার ঘটনাকে কেন্দ্র করে মিথ্যা তথ্য প্রচার ও উস্কানিমূলক পোস্ট দেওয়া হচ্ছিল। দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট ও সহিংসতা বিস্তার করার অপতৎপরতা চলছিল। এছাড়া এ ফেসবুক পেজে পার্শ্ববর্তী দেশে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন নৃশংস ঘটনার ভিডিও আপলোড করে জনমনে ভয়-ভীতি সৃষ্টিসহ উস্কানি দেওয়া হচ্ছিল বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা। এ ধরনের অপপ্রচার অত্যন্ত স্পর্শকাতর ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট ও সহিসংতার জন্ম দিতে পারে বলে মনে করে র‌্যাব।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক বলেন, আশিষ ফেসবুক পেজ থেকে যে ধরনের উস্কানিমূলক ও মিথ্যা পোস্ট প্রচার করতেন তার মধ্যে পার্বত্য জেলার একজন স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিকে নিয়ে একটি মিথ্যা তথ্য দিয়ে পোস্ট করেন। সেখানে বলা হয় ‘সনাতন ধর্মাবলম্বী মানুষদের হুমকি দিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান’। এছাড়া নোয়াখালীতে মারা যাওয়া এক ব্যক্তিকে পায়ের রগ কেটে পুকুর ফেলে দিয়েছেন বলে অপপ্রচার চালানো হয় ওই ফেসবুক পেজ থেকে। পূর্বের অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনায় পঞ্চগড় ও গাইবান্ধায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া স্থানীয় বাসিন্দাদের বাড়িঘর পুড়ে যাওয়াকে সাম্প্রদায়িক হামলা বলে অপপ্রচার করা হয়। ‘সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এই দেশে জন্মই যেন অভিশাপ’ এ বক্তব্য লিখে অভিযুক্ত তার ফেসবুকে প্রচার করেন ও সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেন।

র‌্যাব জানায়, গত কয়েক দিনের চলমান অপ্রীতিকর ঘটনায় চাঁদপুর ও নোয়াখালীতে মহিলাদের ধর্ষণ করা হয়েছে বলেও অপপ্রচার করা হয়। তাছাড়া আশিষ রংপুরের ঘটনাকে ১৯৭১ সালের পুনরাবৃত্তি বলে তুলনা করা হয়। এর বাইরেও পেজটি থেকে সহিংসতায় ক্ষয়ক্ষতি ও মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে উস্কানিমূলক ও ভুল তথ্য প্রদান করা হয় বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.