দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

সরকারি কর্মকর্তা কর্তৃক মনোনয়ন পত্র ছিনতাই,উদ্ধারের পর জমা

0

স্টাফ রিপোর্টার: জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ৪র্থ ধাপে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে বৃহস্পতিবার (২৫) নভেম্বর) সাতপোয়া ইউপির রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা কৃষি অফিসার এ কার্যালয়ে সরকারি কর্মকর্তা কর্তৃক মনোনয়ন পত্র ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও মনোনয়নপত্র জমাদান কারি ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়,সরিষাবাড়ী উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য পদ প্রার্থী শাকিল আহমেদ রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে দায়িত্বে নিয়োজিত উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শরীফুল ইসলাম লিটন এর কাছে ইউপি সদস্য পদে মনোনয়ন পত্র জমা দেন।পাশে থাকা বর্তমান ইউপি সদস্য ও আসন্ন ইউপি নির্বাচনে সদস্য পদপ্রার্থী আলম মিয়ার সমর্থক ইসলামপুর উপজেলার উপজেলা কৃষি অফিসে কর্মরত উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা হারুন মিয়া দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খাতায় এন্ট্রি করার সময় আলম মিয়া কে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়যুক্ত করার লক্ষ্যে মনোনয়ন পত্রটি ছিনতাই করে নেন।ছিনতাই করে নিয়ে দ্রুত স্হান ত্যাগের চেষ্টা করলে সদস্য প্রার্থী শাকিল আহম্মেদ তাকে ধরে ফেলে।এ নিয়ে দুজনের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়।ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে মনোনয়নপত্রসহ সকল কাগজ পত্রাদি দুমড়ে মুচড়ে ফেলে।পরে কর্তব্যরত পুলিশ ও উপস্হিত কর্মকর্তা-কর্মচারী ও জনগণের হস্তক্ষেপে মনোনয়ন পত্রটি উদ্ধার করে জমা দেওয়া হয়।জানা যায় হারুন মিয়া চর সরিষাবাড়ী গ্রামের কদ্দুছ বেপারীর ছেলে।
এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী শাকিল আহম্মেদ অভিযোগ করে বলেন,আমি মনোনয়ন পত্রটি জমা দেই।জমা দেওয়ার পরেই দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রেজিস্ট্রার খাতায় এন্ট্রি করার সময় তার হাত থেকে মনোনয়ন পত্রটি ছিনিয়ে নেয়।
এ ব্যাপারে হারুন মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি মোবাইল রিসিভ করেননি।
এ ব্যাপারে বর্তমান ইউপি সদস্য ও আসন্ন ইউপি নির্বাচনে সদস্য পদপ্রার্থী আলম মিয়ার মুঠোফোনে ফোন করলে তিনি সদুত্তর না দিয়ে বিষয়টি এড়িয়ে যান।
এ ব্যাপারে দায়িত্বরত উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শরীফুল ইসলাম লিটন বলেন,ঘটনাটি দুঃখজনক।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,অফিস স্টাফ,উপস্হিত লোকজন,পুলিশ ও আমার সহায়তায় মনোনয়ন পত্রটি উদ্ধার করে জমা নিয়েছি।পরে আমি জানতে পেরেছি হারুন মিয়া ইসলামপুর উপজেলার কৃষি অফিসে উপ সহকারী কর্মকর্তা পদে পলবান্ধা সিরাজাবাদ ব্লকে কর্মরত আছে।কাজটি তিনি মোটেই ঠিক করেননি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.