দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

BREAKING NEWS

চাঁদপুর মতলবে চেয়ারম্যান সৈয়দ মনজুর রিপন মীর বিরুদ্ধে দূর্ণীতি দমন কমিশন ও বিভিন্ন দপ্তরে রয়েছে অভিযোগ

0

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ মতলব দক্ষিণ উপজেলার ৩নং খাদেরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ার‌্যান সৈয়দ মনজুর রিপন মীর এর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, বাংলাদেশ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ, বাংলাদেশ দূর্নীতি দমন কমিশন, সেগুন বাগিচা, ঢাকা। মতলব দক্ষিণ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা চাঁদপুর জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ রয়েছে।
চাঁদপুর মতলব দক্ষিণ উপজেলা ৩নং খাদেরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ মনজুর হোসেন রিপন মীর তিনি জাতীয় পার্টির সাবেক সংসদ সদস্য এমপি মৃত হারুন খানের পেট্টল পাম্পের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীর কাজ করে এসে ৩নং খাদেরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হয়ে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ। তিনি ইচ্ছাকৃত ভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের মান ক্ষুন্ন করার জন্য গত (১) ১৯-২০ অর্থ বছরের নিবন্ধনকৃত জেলেদের চাউল আত্মসাৎ করা, (২) খএউচ মন্ত্রণালয়ের অউই-৭/১৬-১৭ অর্থ বছরের গড়েভাঙ্গা শাহ আলমের দোকান হইতে গড়েভাঙ্গা মনিরুজ্জামানের (সারেং মাস্টারের) বাড়ী পর্যন্ত রাস্তা ইটের সলিং করা হয়। পরবর্তীতে চেয়ারম্যান সৈয়দ মনজুর হোসেন রিপন (মীর) ইটগুলো উঠাইয়া নিজের ব্যক্তিগত কাজে এবং বিভিন্ন সরকারী কাজে ব্যবহার করে দুই লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেন। নারায়ণপুর কাজী বাড়ীর মোড় হইতে লামচরীর রাস্তা এলজিইডি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের গত ১৯-২০ অর্থ বছরে মেসার্স আবরাব এন্টারপ্রাইজের প্রতিষ্ঠানে পক্ষ মেরামতের কাজ করেন। কিন্তু চেয়ারম্যান সৈয়দ মনজুর হোসেন রিপন (মীর) একই রাস্তা একই অর্থ বছরে পিআইও অফিসের কাবিখা সাধারণ ৪/১৯-২০ অর্থ বছরের ৮ মেট্টিক ন চাউল বরাদ্দ করে টাকা অর্থ আত্মসাৎ করে। ইউনিয়ন বিভিন্ন প্রকল্প যেমন- ৪০ দিনের কর্মসূচী এলজিএসপি ১% বাস্তবায়ন করতে হলে ইরউপি সদস্যরা ৪৫-৩০% চেয়ারম্যানকে চাঁদা দিয়ে কাজ করতে হয়। কোভিড-১৯ মহামারি ভাইরাস স্কুলের ছাত্র ছাত্রীদের এবং শিশুদের জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে থেকে দেওয়া ভিটামিন এ এবং কৃমিনাশক ঔষধ ও ভিটামিন সি খাবার আত্মসাৎ করেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের গরীব ও অসহায় মানুষদের বিনামূল্যে ঘর দেওয়ার কথা থাকলে ও সৈয়দ মনজুর হোসেন রিপন (মীর) তাহার নিজ ব্যক্তিগত হাজার লাখপতিদেরকে ইটের দালান ঘর ও টিনের চৌকাট ঘর অর্থের বিনিময়ে দিয়েছেন। ৩নং খাদেরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের কাজ না করে অর্থ আত্মসাৎ করেন। এইভাবে মোটা অংকের সরকারী টাকা আত্মসাৎ করেন কৃষি ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, পদ্মা ব্যাংক, এক্সিম ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক ও আল আরাফা ইসলামী ব্যাংক লিঃ, নারায়ণপুর শাখায় আর্থিক লেনদেন করেন এবং তার নিজ এলাকায় কয়েক কোটি টাকার সম্পদের মালিক হন এবং ঢাকা মালিবাগে ৫ কাটার জায়গার মধ্যে চারতলা ভবন সম্পন্ন করেন। এভাবে অনুপ্রবেশকারী হয়ে জাতীয়পার্টি থেকে এসে আওয়ামী যুবলীগ ও বর্তমানে আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে আছেন।
এ বিষয়ে জাতীয় দৈনিক মাতৃভূমির খবর ও জাতীয় দৈনিক একুশে বানী এবং জাতীয় দৈনিক আলোর জগত পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধি এবং রুর‌্যাল জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন (আরজেএফ) এর সদস্য, জাতীয় পরিষদ এবং ক্রাইম রির্পোটার তপছিল হাসানকে অভিযোগের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করিলে তিনি বলেন, যে ঘটনা সত্য আমি গত ১০ জুন ২০২১ইং তারিখে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, বাংলাদেশ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ, বাংলাদেশ দূর্নীতি দমন কমিশন, সেগুন বাগিচা, ঢাকা, চাঁদপুর জেলা প্রশাসক, মতলব দক্ষিণ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর সত্যতা যাচাই করার জন্য আমি অভিযোগ দায়ের করেছি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.