দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

BREAKING NEWS

নির্বাচন ট্রাইব্যুাল মোকদ্দমা’র রায়ে আনিছ কে বিজয়ী ঘোষনা

0

স্টাফ রিপোটার :জামালপুরের সিনিয়র সহকারী জজ ১ম আদালত সদর ও নির্বাচন ট্রাইব্যুাল মোকদ্দমা নং-২৫/২০২২ইং নির্বাচনে নির্বাচন ট্রাইব্যুাল মোকদ্দমায় গত ২৯ মার্চ রায়ে আনিছ কে বিজয়ী ঘোষনা করা হয়েছে। জামালপুরের সিনিয়র সহকারী জজ ১ম আদালত সদর ও নির্বাচন ট্রাইব্যুাল এর ইকবাল মাহমুদ স্বাক্ষরিত এ রায় ঘোষনা করেছেন।
মামলার আরজী সুত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী উপজেলার ৪ নং আওনা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের সাধারন সদস্য পদে আনিছ গত ২০২১ ইং সালের ২৬ ডিসেম্বর প্রতিদ্বদী প্রার্থী আ: সালাম এর ফলাফল বাতিল চেয়ে সিনিয়র সহকারী জজ ১ম আদালত সদর ও নির্বাচন ট্রাইব্যুনালে মোকদ্দমা দায়ের করেন। উক্ত নির্বাচনে আনিছ সাধারন সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দিতা করেন টিউবওয়েল প্রতিকে। অপর প্রতিদ্বন্দি প্রার্থী আ: ছালাম (মোরগ) প্রতিক ও অপর প্রাথী হাফিজুর রহমান ফুটবল প্রতিকে প্রতিদ্বন্দিতা করেন। ৫৯ নং উল্লাহ কুমার পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে টিউবওয়েল প্রতিকের প্রার্থী আনিছের এজেন্ট আমিনুর রহমান কে জোরপুর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে ভোট কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া হয় বলে আরজিতে উল্লেখ করেন আনিছ। এ ছাড়া ভোট গণনায় বিভিন্ন অনিয়ম সহ হিসাবের গরমিল প্রার্থী ছাড়াও অনান্য প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীদের ফলাফল বিবরণীতেও অনিয়মের অভিযোগ মামলার আরজীতে উল্লেখ করা হয়। আনিছের ভোটের সংখ্যার চেয়ে বৈধ ভোট বেশী বা অবৈধ ভোট বেশী দেখানো হয়। এ প্রেক্ষিতে চলতি বছরের ২রা জানুয়ারী রির্টানিং অফিসার এবং নির্বাচন অফিসার বরাবর ভোট গুনার জন্য আবেদন করলেও আনিছ কোন প্রতিকার না পাওয়ায় ভোট গণনা সহ প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীর চেয়ে বেশী ভোট পেয়ে বিজয় লাভ করবে এ মর্মে নির্বাচন ট্রাইব্যুাল মোকদ্দমা করেন। এ প্রেক্ষিতে চলতি বছরের গত ১৩ মার্চ ভোট গুনার বিষয়ে প্রার্থীর প্রাথিত মতে ভোট গণনার দরখাস্থ মঞ্জুর করেন আদালত। পরবতী চলতি বছরের ২৪ মার্চ ৪ নং আওনা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ৯ নং ওয়ার্ডে ৫৯নং উল্লা কুমারপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের মুড়ী ,ব্যালট পেপার সহ অনান্য কাগজপত্রাদির সিভির বস্তা এবং চলতি বছরের ২৭ মার্চ ভোট গণনার জন্য আদালতের সেরেস্তাদারকে আদালতের প্রতিনিধি প্রতিনিধি হিসেবে মনোনয়ন প্রদান করা হয় এবং আদালতের সহায়ক কর্মচারীবৃন্দ সেরেস্তাদারকে ভোট গণনার জন্য সহায়তা করার জন্য প্রাথী আনিছ ও প্রতিপক্ষ আ: ছালাম সহ আইনজিবী এবং প্রার্থী অনিছ ও প্রতিপক্ষ ২ জন সহ আইন শৃংখলা রক্ষা করা বাহিনীর উপস্তিতিতে ভোট গণনা করে সেরেস্তাদারের আদালতে ভোট গণনার বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল করেন। প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে আদালতের বিচারকের সন্মুখে সীল গালাকৃত বস্তা খোলা হয় আদালতের সহায়ক কর্মচারীদের সহায়তায় পুন:গণনা শেষে আনিছ এর টিউবওয়েল প্রতিকের ভোট ৪২৭টি এবং ৪১টি ভোট বাতিল ভোট পান। প্রতিপক্ষ আ: ছালাম এর মোরগ প্রতিকের বৈধ ভোট ৪২৫টি এবং ৭১টি বাতিল ভোট পান। মামলার বাদী আনিছ পান ৪২৭ ভোট এবং আ: ছালাম মোরগ প্রতিক ৪২৫ ভোট। আনিছ (টিউবওয়েল) প্রতিক (৪২৭-৪২৫)=০২ভোটব্যাবধানে টিউবওয়েল প্রতিকের প্রার্থী আনিছ বেশী পান।
এ লক্ষে সরিষাবাড়ী উপজেলার ৪নং আওনা ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নং ওয়ার্ডের সাধারন সদস্য পদে প্রার্থী আনিছ কে বিজযী ঘোষনা করা হয় এবং প্রতিদ্বদী প্রার্থী আ: ছালাম কে পরাজিত ঘোষনা করা হয়। পরবর্তী ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য নির্বাচন কমিশন বরাবর নির্বাচন ট্রাইব্যুালের রায়ের আদেশের কপি প্রেরন করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.