দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

BREAKING NEWS

টানা-হেচড়া করে ভিক্ষুক পরিবার কে গ্রেফতার ঘটনায় ৪ এস আই কে সাময়িক বরখাস্ত

0

স্টাফ রিপোটার: জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ভিক্ষুক পরিবারকে টানা-হেচড়া করে গ্রেফতার ঘটনায় সরিষাবাড়ী থানার ৪ এসআই কে চাকুরী থেকে সাময়িক বরখাস্ত এবং ২ কনষ্টেবলকে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন পুলিশ কতৃপক্ষ।গতকাল মঙ্গলবার রাতে সরিষাবাড়ী থানার এসআই আলতাব হোসেন, এসআই সাইফুল ইসলাম, এসআই ওয়াজেদ আলী ও এসআই মুন্তাজ আলী কে চাকুরী থেকে সাময়িক বরখাস্ত এবং কনস্টেবল মোজাম্মেল হক ও মহিলা পুলিশ সদস‌্য সাথী আক্তার এর বিরুদ্ধে এ আদেশ জারী করেন জামালপুর পুলিশ সুপার নাছির উদ্দিন।তাদের কে সরিষাবাড়ী থানা থেকে আর আই জামালপুর পুলিশ লাইনে নেয়া হয়েছে।এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হোসেন সুমন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও বিরোধপুর্ন ভুমিস্থল পরিদর্শন করেন।

উল্লেখ্য যে, গত সোমবার (৯ মে) দুপুরে সরিষাবাড়ী পৌরসভার বাউসী বাজার এলাকায় অর্পিত ভুমিতে বসবাসকারী ভিক্ষুক আব্দুল জলিল কে উচ্ছেদ করতে তার বসত ঘর ভাংচুর ও মারপিট করে প্রতিপক্ষ মজিবর রহমান,জামাতা মমিনুল ইসলাম,জসিম উদ্দিন এর নেতৃত্বে ভাড়াটিয়া ৪০/৫০ লোকজন দিয়ে। ওই হামলা ও মারপিটের ঘটনার খবর পেয়ে সরিষাবাড়ী থাআ পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে এবং গুরুতর আহত ভিক্ষুক আব্দুল জলিল (৬০),তার স্ত্রী লাইলী বেগম (৫০), ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক (৩০), ওয়াজকরনী (২৫) সহ মজিবর রহমান এর জামাতা, জসিম (৩২), ছালমা (৩৮), শুভ (১৯), শাহীদা (৫৫) পুলিশী হেফাজতে সরিষাবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করে। মারপিট ও ভাংচুর ঘটনায় আব্দুল জলিল বাদী হয়ে একই গ্রামের পাশের বাড়ীর মজিবুর রহমান এর লোকজনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিলেও তা আমলে না নিয়ে প্রভাবশালী মজিবর রহমান এর দায়ের করা মামলা ভিক্ষুক আব্দুল জলিলকে প্রধান বিবাদী ও ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে সোমবার রাতেই সরিষাবাড়ী থানায় রুজু করে নেন। যাহা সরিষাবাড়ী থানার মামলা নং-০৯, তারিখ-০৯-০৫-২০২২ইং। ওই মামলায় সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ভিক্ষুক আব্দুল জলিল সহ তার স্ত্রী,পুত্র কে পুলিশ গ্রেফতার করতে গেলে আত্ন চিৎিকার দিলে এস আই আলতাব হোসেন তার মুখ চেপে ধরে একপর্যায়ে জবর দস্তি করে হাসপাতাল বেড় থেকে টানা-হেচড়া করে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ‌্যমে জেল হাজতে প্রেরন করে সরিষাবাড়ী থানার এস আই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মুন্তাজ আলী। এ ঘটনা বিভিন্ন অন লাইন পত্রিকায় ও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।
পরে মঙ্গলবার (১০মে) রাতেই ভিক্ষুক আব্দুল জলিল বাদী হয়ে মজিবর রহমান কে প্রধান আসামী করে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা গ্রহন করে সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ।ভিক্ষুক আব্দুল জলিল এর দায়ের করা মামলায় মজিবর রহমান ও শাহ আলম নামে দুই জন কে মঙ্গলবার রাতেই পৌর সভার বাউসী বাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। গ্রেফতারকৃত দু-জনকে গতকাল বুধবার দুপুরে আদালতের মাধ‌্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। যার মামলা নং-১১,তারিখ-১০-০৫-২০২২ইং।এ দিকে মজিবর রহমান এর জামাতা জসিম উদ্দিন গুরুতর আহত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।

জানতে চাইলে জামালপুর পুলিশ সুপার মো: নাছির উদ্দীন আহমেদ জানান,সরিষাবাড়ী থানার ৪ এস আই এর বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া হয়েছে।তদন্ত সাপেক্ষে সরিষাবাড়ী থানার ওসির সংশ্লিষ্টতা পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.