দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

ধনবাড়ীতে অন্যের বসতভিটা জোর করে বেদখল ।। অভিযোগ ভোক্তভোগী পরিবাররে

0

 

ধনবাড়ী (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে জমি দখল করে বসতভিটা থেকে বিতাড়িত করার অভিযোগ এনে সংবাদ  সম্মেল করেন এক ভুক্তভোগী পরিবার। গতকাল  দুপুরে ধনবাড়ী প্রেসক্লাব এর অস্থায়ী কার্যালয় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে এই সংবাদ সম্মেলন করে পরিবারটি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন  ভুক্তভোগী ধনবাড়ী উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের পাচনখালী গ্রামের মৃত আব্দুল শেখের ছেলে ছোরহাব আলী, তাঁর স্ত্রী আলেয়া বেগম ও মেয়ে তিথি আক্তার সালমা। তাঁরা প্রসাশনের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

 

পরিবারের সদস্যরা জানান, ধনবাড়ী উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের বীরতারা মৌজার ৬২৫ নং খতিয়ানের ৩৬৭, ৬৬৮ ও ৬৬৯ নং দাগের বসতভিটাসহ মোট সাড়ে ৩৬ শতাংশ জমি জোরপূর্ব ভাবে  এই গ্রামের মোঃ আব্দুল সামাদ (৫৫), মোঃ মনসুর হেলাল (৩৫), আঃ ছালাম (৫৬), আব্দুল হাকিম (৬৫), মো. আব্দুল হক (৬০), মোজাম্মেল (৩০) এবং পাশের গ্রামের হানিফ সহ আরও কিছু লোকজন মিলে  জোর করে বাড়ী থেকে বের করে দিয়ে জমি বেদখল করার চেষ্ঠা করে যাচ্ছে।  এখন  পরিবারটি কে তাদের বাড়ীতে যেতে বাধা সৃষ্ঠি করা হচ্ছে।  বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করলে একাধিকবার হামলা চালিয়ে পরিবারটিকে গুরুতর আহত করেছে। স্থানীয় ভাবে বেশ কয়েক বার গ্রাম্য শালিশী বৈঠকে স্থানীয়রা মিমাংশা করতে চাইলে সেখানেও হামলা চালায় প্রতি পক্ষ।

 

দীর্ঘদিন যাবত জীবন বাচানোর জন্য নিজের বাড়ী ঘর ছেলে অন্যের বাড়িতে বসবাস করে আসছে পরিবারটি।  বিষয়টি নিয়ে  ধনবাড়ী থানায় অভিযোগ দেওয়ার কারনে প্রতিপক্ষ ক্ষীপ্ত হয়ে এখন  পরিবারটি  সকল সদস্যদের কে প্রাণ নাশের  হুমকী দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। এমন অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীসহ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে অসহায় পরিবারটি। বিষয়টি নিয়ে বীরতারা ইউপি চেয়ারম্যান আহমেদ আল ফরিদ বলেন, ‘ ঘটনাটি শুনেছি তাদের মধ্য জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। খোঁজ নিয়ে বিষয়টি জেনে মিমাংশার চেষ্টা করবো।’

বিষয়টি নিয়ে ধনবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এইচএম জসিম জানান, ‘ঘটনাটি তদন্তে অফিসার গিয়েছিল। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন  ধনবাড়ী প্রেসক্লাবের সম্পাদক আনছার আলী, সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল্লাহ আবু এহসানসহ অন্যান্য গণমাধ্যম কর্মীরা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.