দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

শাকিব: অপু-বুবলী অপছন্দের কাজ করেছে, এরপরেও সম্পর্ক রাখা যায়?

0

 

শাকিব বলেন, জীবনের বাকি দিনগুলোতে আর কোনো ভুল মানুষের সঙ্গে মিশতে চাই না। আর কোনো ভুল করতে চাই না। ভুল করে মেশা সেই বাজে মানুষগুলোকে আর পাশে রাখতে চাই না। এখন থেকে শুধুই পজিটিভ ওয়েতে চলব

 

 

চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস ও শবনম বুবলীর সঙ্গে প্রেম, বিয়ে, সন্তান, বিচ্ছেদ এসব নিয়ে গত কয়েক বছর ধরেই সিনেমার বাইরে আলোচনায় ঢাকাই সিনেমার সুপারস্টার শাকিব খান।

গত মাসে নায়িকা বুবলীর সন্তান নিয়ে প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই গুঞ্জন রয়েছে শাকিব-বুবলীর বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে। একই সময়ে গুঞ্জন ওঠে শাকিব হয়তো অপু বিশ্বাসের কাছে ফিরবেন।

তবে, এসব গুঞ্জনের বিষয়ে সরাসরি কোনো মন্তব্য করেননি শাকিব খান। যদিও বুবলি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, তিনি বিয়ে করেছেন সংসার করার জন্য।

তবে শাকিব খানের ইঙ্গিত পুরো বিপরীত। সম্প্রতি এসব বিষয়ে শাকিব খানের বরাতে সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টার এক প্রতিবেদনে জানায়, তাদের বিয়েবিচ্ছেদ না হলেও তারা আলাদা থাকছেন।

 

মানুষ বোঝে না, আমাদের মধ্যে এখন কোনো সম্পর্ক নেই!

শাকিব খান সংবাদমাধ্যমটিকে বলেন, “মানুষ কি দেখে বোঝে না, আমাদের দুজনের মধ্যে এখন কোনো সম্পর্ক নেই! তাদের তো এমনিতেই বোঝা উচিত এই দূরত্বের কথা। নয় মাস আগে সে (বুবলী) আমেরিকা থেকে আসার পর তার সঙ্গে কোনো প্রকার যোগাযোগ নেই আমার। এর মানেটা কী জনে জনে সবাইকে গিয়ে বুঝিয়ে আসতে হবে? একসময় মানুষ আমাদের সম্পর্ক কোন পর্যায়ে আছে এমনিতেই জেনে যাবে। এটাতো এমনিতেই মানুষের বোঝা উচিত এই দূরত্বের কথা।”

 

 

সন্তান জন্মের বিষয়টি আড়ালে রাখতে তিনি বুবলীকে কখনো বলেননি বলেও ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টারের সঙ্গে আলাপকালে জানান। তার ভ্যাষ্যমতে, নিজের ক্যারিয়ারের কথা ভেবে বুবলী নিজেই সন্তানের বিষয়টি আড়াল করেছিলেন। বুবলীর সন্তানের কথা কি আমি তাকে আড়াল করে রাখতে বলেছিলাম? নিজের ক্যারিয়ারের কথা ভেবে তিনি সেটা প্রকাশ করেননি। আমি তো তার মুখ বন্ধ রাখতে বলিনি। মাঝে নিজে অনেক কিছু করেছে সে। সব খবরই তো আসে আমার কানে। থাক সেইসব কথা।”

 

 

অপু বিশ্বাস আবার শাকিব খানের জীবনে ফেরার চেষ্টা করছিলেন

এদিকে সংবাদমাধ্যম প্রথম আলো এক প্রতিবেদনে জানায়, শাকিব খান ও বুবলীর সন্তানের খবরটি প্রকাশ্যে আসার পরপরই ঘটনা থেমে যেতে পারত। কিন্তু তা হয়নি। বিভিন্ন মাধ্যমে শোনা যাচ্ছিল, অতীতের ভুল বুঝতে পেরে অপু বিশ্বাস আবার শাকিব খানের জীবনে ফেরার চেষ্টা করছিলেন। অপু তার একাধিক সহকর্মীকেও এমন ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন। এদিকে সন্তান জয়ের কারণে অপু বিশ্বাস যাওয়া-আসা করতেন শাকিব খানের গুলশানের বাসায়। এসব তথ্য এক-দুই কান হয়ে বুবলীর কাছেও গিয়ে পৌঁছায়। এদিকে আব্রাহামের জন্মদিনে বাবা শাকিব খানের আবেগঘন ফেসবুক পোস্ট দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর বুবলী তার বেবিবাম্পের খবরটি জানান।

ছেলে আব্রাহাম খান জয়ের সঙ্গে শাকিব ও অপু /ফেসবুক

অপু বিশ্বাস ও বুবলীর সন্তানের বিষয়টা গণমাধ্যমে আসার কারণে দেশের মানুষ একতরফা দোষারোপ করতে থাকে শাকিব খানকে। এসব নিয়ে শাকিব খান এর আগে মুখ খোলেননি। সম্প্রতি এক গণমাধ্যমে এসব বিষয়ে কথা বলেছেন শাকিব খান। সরাসরি কিছু না বললেও কৌশলে শাকিব খান বলে দিয়েছেন অনেক কিছু।

বাকি দিনগুলোতে আর কোনো ভুল মানুষের সঙ্গে মিশতে চাই না

তিনি বলেছেন, “আমি আমার জীবনের সবচেয়ে বড় শিক্ষা পেয়েছি দুটি সময়। প্রথমটা করোনাকালে যখন একাকী ছিলাম। আর দ্বিতীয়টা যখন নিঃসঙ্গভাবে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করেছি।”

শাকিব জানালেন, “আমি সেই দিনগুলোতে একাকী থাকায় নিজের জীবনের ফেলে আসা দিন নিয়ে হিসাব করার অফুরন্ত সময় পেয়েছিলাম। তখন নিজের ফেলে আসা জীবনের হিসাব-নিকাশ করতে গিয়ে দেখলাম, না বুঝে অনেক ভুল করে ফেলেছি। বেশির ভাগ ভুল করেছি ভুল মানুষের সঙ্গে মিশে। মনে হচ্ছে, সেই ভুলেরই খেসারত দিচ্ছি এখন। তাই জীবনের বাকি দিনগুলোতে আর কোনো ভুল মানুষের সঙ্গে মিশতে চাই না। আর কোনো ভুল করতে চাই না। ভুল করে মেশা সেই বাজে মানুষগুলোকে আর পাশে রাখতে চাই না। এখন থেকে শুধুই পজিটিভ ওয়েতে চলব। সৃষ্টিকর্তা আমাকে এমন উচ্চাসনে উপবিষ্ট করেছেন, আমার দর্শক-ভক্তরা আমাকে আকাশসমান ভালোবাসা দেওয়ার পরও কেন আমি ভুল পথে চলে আজ আমার কর্ম ও ব্যক্তিজীবন নিয়ে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছি। এটিই এখন আমার জীবনের সবচেয়ে বড় অনুশোচনা।”

অপু বা বুবলী কেউই আমাকে সেই সুযোগ দেয়নি

শাকিব খান জানান, “দেখুন ফিল্মস্টার হলেও অন্য দশজনের মতো আমিও একজন সাধারণ মানুষ। সবার মতো আমারও ব্যক্তিগত জীবন বলে একটা কিছু আছে। প্রেম, বিয়ে ও সন্তান প্রত্যেক মানুষের একান্তই ব্যক্তিগত বিষয়। এগুলো ঢাকঢোল পিটিয়ে প্রচার করার বিষয় নয়। আর আমি আমার পারসোনাল লাইফ পাবলিকের সামনে আনতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি না। আমার ইচ্ছা ছিল, সময়মতো সুন্দর আয়োজনের মাধ্যমে ঘটা করে বিষয়টি সবাইকে জানিয়ে, সবার সঙ্গে একসঙ্গে আনন্দ করব। কিন্তু অপু বা বুবলী কেউই আমাকে সেই সুযোগ দেয়নি। আমার অপছন্দের কাজ করে সবার কাছে আমাকে ছোট করার পরও কী তাদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা যায়? আমার সঙ্গে বিয়ে ও সন্তান নিয়ে তাদের মনে যখন এমনই উচ্ছ্বাস ছিল, তখন তারা বিয়ে বা সন্তান জন্মের পরপরই সবাইকে বিষয়টি কেন জানাল না! আমি তো তাদের মুখ বন্ধ করে রাখিনি। প্রকাশই যদি করতে হলো, তাহলে এত দেরিতে কেন? তাহলে কী তারা আমার শত্রুদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে আমাকে অপমান আর ধ্বংস করতে চেয়েছিল? এই প্রশ্ন আমি আমার ভালোবাসার দর্শক-ভক্তদের কাছেই রাখলাম।”

বুবলীর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে শাকিব খান /ফেসবুক

উল্লেখ্য, গত ৩০ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২টায় নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে বুবলী ছেলের কয়েকেটি ছবি প্রকাশ করেন। যেখানে ছেলের সঙ্গে শাকিব খানও রয়েছেন। জানান ছেলের নাম। এর ২০ মিনিট পর নিজের ফেসবুকে সন্তান শেহজাদ খান বীরের ছবি পোস্ট করেন শাকিব খান। তবে শাকিবের পোস্টের ছবিতে ছিলেন না বুবলী। তাই তখন অনেকেই ধারণা করেন, সন্তানের বিষয়টি প্রকাশ্যে আনলেও সম্পর্ক ভালো নেই শাকিব-বুবলীর।

৩ অক্টোবর নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে বুবলী জানান, ২০১৮ সালের ২০ জুলাই ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খানের সঙ্গে তিনি বিবাববন্ধনে আবন্ধ হন। ২০২০ সালের ২১ মার্চ পৃথিবীর আলো দেখে তাদের সন্তান শেহজাদ খান বীর।

এর আগে, শাকিবের খান ও অপু বিশ্বাসের বিচ্ছেদ হয় ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি। তাদের ১০ বছরের সংসারে আব্রাম খান জয় নামে এক ছেলে আছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.