দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

BREAKING NEWS

পানছড়ির আলীনগর এলাকার চাঞ্চল্যকর রাকিব হত্যার আরেক আসামী মানিক মিয়া গ্রেফতার

0

 

মিঠুন সাহা, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

পিবিআই চট্টগ্রাম জেলা কর্তৃক খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার পানছড়ি থানার চাঞ্চল্যকর রাকিব হত্যা মামলার আরেক আসামী মানিক মিয়া (৫৩) কে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 

গ্রেফতারকৃত আসামী মানিক মিয়া(৫৩) পিতা- রঙ্গু মিয়াকে গত ১৬/১/২০২৩ তারিখে খাগড়াছড়ি শাপলা চত্ত্বর এলাকা হতে দুপুর ২টার দিকে গ্রেফতার করা হয়। সে আরিফুল ও জুলহাস এর বিজ্ঞ আদালতে ফৌ:কা:বি ১৬৪ ধারার জবানবন্দি তে প্রকাশিত আসমী।

 

সূত্র: খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার পানছড়ি থানার মামলা নং-০৪, তারিখ-২০/০১/২০২১ইং, ধারা-৩০২/৩৪ পেনাল কোড।অত্র মামলার ভিকটিম মোঃ রাকিব হোসেন (১৭), পিতা-মোঃ আলী হোসেন, গ্রাম: আলীনগর, ৪নং ওয়ার্ড, উল্টাছড়ি ইউপি,
থানা-পানছড়ি,জেলা-খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পানছড়ি কলেজের এইচএসসির ১ম বর্ষের ছাত্র। সে গত ১৯/০১/২০২১ ইং তারিখ রাত অনুমান সন্ধ্যা ৭টা :৩০ ঘটিকার সময় মোটরসাইকেল যোগে তার বন্ধু আরিফসহ পানছড়ি বাজার হতে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে।

 

পথিমধ্যে সঙ্গীয় আরিফকে তাহার বাড়ীর সামনে নামইয়া দিয়া বাড়ী যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করিলে রাত অনুমান সন্ধ্যা ৭টা ৪৫ মিনিটের সময় অজ্ঞাতনামা দুস্কৃকিতারীরা ধারালো অস্ত্র দ্বারা মাথার বাম পাশে কোপ মারে। রক্তাক্ত অবস্থায় ভিকটিমকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল ও পরবর্তীতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হলে তারপর দিন ২০/০১/২০২১ইং তারিখ অনুমান ভোর ৪টার সময় মৃত্যু বরন করেন।

 

এই সংক্রান্তে ভিকটিমের পিতা আলী হোসেন বাদী হইয়া অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে পানছড়ি থানায় এজাহার দায়ের করিলে পানছড়ি থানার মামলা নং-০৪, তারিখ-২০/০১/২০২১ইং,ধারা-৩০২/৩৪ পেনাল কোড রুজু হয়।বর্ণিত চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলাটি বাদীর নারাজীর প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে পিবিআই, চট্টগ্রাম জেলার নিকট অধিকতর তদন্তভার ন্যস্ত হয়। তৎপ্রেক্ষিতে পিবিআই চট্টগ্রাম জেলার এসআই (নিঃ) পরিতোষ দাশ’কে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়।

 

 

তিনি এই চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার তদন্তভার গ্রহণ করিয়া বিশ্বস্ত গুপ্তচর নিয়োগ এবং আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে মামলার তদন্ত কার্যক্রম অব্যাহত রাখেন।মামলাটি সুষ্ঠুভাবে তদন্তের লক্ষ্যে পিবিআই প্রধান অ্যাডিশনাল আইজিপি জনাব বনজ কুমার মজুমদার, বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদয় সার্বিক দিক নির্দেশনা প্রদান করেন।

 

 

এরই ধারাবাহিকতায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই (নিঃ) পরিতোষ দাশ এর নেতৃত্বে এবং পিবিআই চট্টগ্রাম জেলার পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান, পিপিএম-সেবা এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে গত ০৫/০৯/২০২২ ইং তারিখ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করিয়া বর্ণিত হত্যা মামলার তদন্তে প্রকাশিত আসামী মোঃ আরিফুল ইসলাম (২০), পিতা-মোঃ বাহাদুর মিয়া, সাং-আলীনগর, ৪নং ওয়ার্ড, উল্টাছড়ি ইউপি, থানা-পানছড়ি, জেলা-খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলাকে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার পানছড়ি বাজার হইতে গ্রেফতার পূর্বক বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়।

 

 

বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দকৃত আসামী মোঃ আরিফুল ইসলাম (২০) উক্ত হত্যাকান্ডে জড়িত মর্মে নিজেকে জড়িয়ে ও অপরাপর আসামীদের নাম উল্লেখ পূর্বক ফৌঃ কাঃ বিঃ ১৬৪ ধারা মোতাবেক স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করে।স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি পর্যালোচনায় দেখা যায় যে,আসামী আরিফুল ইসলাম ভিকটিম রাকিব হোসেন এর ঘনিষ্ট বন্ধু।তার পরপরই আরিফুলের কাছ থেকে পাওয়া স্বীকারোক্তি ও জবানবন্দি অনুযায়ী জুলহাসকে গ্রেফতার করা হয়।এবং জুলহাসও একই বক্তব্য বিজ্ঞ আদালতে জবানবন্দি প্রদান করেন।

 

তাদের দুইজনের জবানবন্দি অনুযায়ী মানিক মিয়া(৫৩) পিতা- রঙ্গু মিয়াকে গত ১৬/১/২০২৩ ইং তারিখে খাগড়াছড়ি শাপলা চত্ত্বর এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়।

 

জনৈক মেম্বারের মেয়ের সহিত ভিকটিম রাকিবের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তাহাদের প্রেমের সম্পর্কটি ভিকটিমের প্রেমিকার আপন ভাই জেনে যাওয়ায় ভিকটিমকে হত্যার পরিকল্পনা করিতে থাকে। পরিকল্পনা মোতাবেক ভিকটিমের ঘনিষ্ট বন্ধু গ্রেফতারকৃত আসামী আরিফুল ইসলামকে আতাত করে।অত্র মামলার ঘটনার দিন গ্রেফতারকৃত আসামী আরিফুল ইসলাম ভিকটিমের সহিত পানছড়ি বাজারে দেখা করতঃ বাড়ী যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে।

 

 

ভিকটিমের বাড়ী ও গ্রেফতারকৃত আসামী আরিফুলের বাড়ী কাছাকাছি অবস্থিত। ধৃত আসামীর বাড়ী ভিকটিমের বাড়ীর আগে হওয়ায় সে ভিকটিমের মোটরসাইকেল হতে নেমে যায় এবং সংবাদটি ভাড়াটিয়া কিলার তুলা মিয়াকে জানাইয়া দেয়। ভিকটিম মোটরসাইকেল নিয়া ঘটনাস্থল কনকবাগানের দক্ষিন পূর্ব কোনে পৌঁছা মাত্রই ভাড়াটিয়া কিলার তুলা মিয়া তাহার অপরাপর ০৪ জন সহযোগী’কে নিয়া ভিকটিমের মাথার বাম পাশের্^ ধারালো দা দ্বারা স্বজোরে কোপ মারিলে ভিকটিম মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে যায়।

 

 

সেখান থেকে উঠিয়া দৌঁড়াইয়া পাশ্ববর্তী বাড়ী অর্থাৎ গ্রেফতারকৃত আসামী ভিকটিমের ঘনিষ্ঠ বন্ধু গ্রেফতারকৃত আসামী আরিফুল ইসলামের বাড়ীতে গিয়া লুটাইয়া পড়িলে আরিফুলের পরিবারের সদস্যরা ভিকটিমের মাথা গামছা দিয়ে বেঁধে দেয়। ঘটনাস্থল হইতে ভিকটিমকে উদ্ধার পূর্বক প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরবর্তীতে চ.মে.ক হাসপাতালে ভর্তির কিছুক্ষণ পর ভিকটিম মৃত্যু বরণ করেন। উক্ত হত্যাকান্ডের ঘটনার সহিত সম্পৃক্ত পলাতক অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে এবং মামলাটির তদন্ত কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

 

এই বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই (নিঃ) পরিতোষ দাশ জানান: পিবিআই প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি জনাব বনজ কুমার মজুমদার, বিপিএম (বার), পিপিএম স্যার এর সার্বিক দিক নির্দেশনা ও পিবিআই চট্টগ্রাম জেলার পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান, পিপিএম-সেবা এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে গ্রেফতারকৃত আসামী মানিক মিয়া(৫৩) পিতা-রঙ্গু মিয়াকে গত ১৬/১/২০২৩ তারিখে খাগড়াছড়ি শাপলা চত্ত্বর এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়। সে আরিফুল ও জুলহাস এর বিজ্ঞ আদালতে ফৌ:কা:বি ১৬৪ ধারার জবানবন্দি তে প্রকাশিত আসমী।আসামী মানিক মিয়াকে ১৭/০১/২৩ তারিখে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে এবং তাকে ৭ দিনের রিমান্ডের জন্য আমরা আবেদন করি।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.