দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

BREAKING NEWS

শেষ হলো অপেক্ষার পালা,আগামীকাল থেকে খাগড়াছড়িতে শুরু হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব

0

 

মিঠুন সাহা, খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা

শেষ হলো অপেক্ষার পালা আগামীকাল থেকে সারা দেশের সকল জেলা ও উপজেলার মতো এই খাগড়াছড়ির জেলার ৯টি উপজেলার ৬০টি পূজামণ্ডপের মহা ধুমধামের মধ্যে শুরু হচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা।

প্রতিমা তৈরি শেষ। বাহারি রং চড়েছে প্রতিমার গায়। নিপুণ শিল্পী তার তুলির আলতো ছোঁয়ায় জাগিয়ে তুলেছেন মা দুর্গাকে। জেগে উঠছেন সরস্বতী। গণেশের গায় উঠেছে নকশীদার কুচির দুধসাদা ধুতি। মা লক্ষ্মীর হাসি যেন ঝরে পড়ছে। আজ দেবীর বোধন। শারদীয় দুর্গোৎসবের প্রাক্কালে এই বোধনের মাধ্যমে দক্ষিণায়নের নিদ্রিত দেবী দুর্গার নিদ্রা ভাঙ্গার জন্য বন্দনা পূজা করা হবে। জেগে উঠবেন দশভুজা। আজ বোধনে খুলে যাবে দশপ্রহরণধারিণী ত্রিনয়নী দেবী দুর্গার অতল স্নিগ্ধ চোখের পলক। আগামীকাল শুক্রবার মহাষষ্ঠী থেকে শুরু হবে পাঁচ দিনব্যাপী বাঙালী হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা।

ঢাকের বোল, কাঁসর ঘণ্টা, শাঁখের ধ্বনিতে মুখর হয়ে উঠবে সকল পূজা মন্ডপ। বছর ঘুরে দেবীর আগমনিবার্তায় উৎসবের আমেজ এখন হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘরে ঘরে।

পানছড়ি বাজার দেবালয় মন্দিরের প্রধান পুরোহিত রুপম চক্রবর্তী জানান,এ বছর ঘটকে চরে দেবী দূর্গা মর্ত্য লোকে পদার্পন করবেন ।আবার ঘটকেই কৈলাশে ফিরবেন। আগামীকাল ২০ অক্টোবর শুক্রবার পূজার আনুষ্ঠানিকতা মহাষষ্ঠী পালিত হবে, মহাসপ্তমী হবে ২১ অক্টোবর শনিবার, মহাঅষ্টমী ২২ অক্টোবর রবিবার। মহানবমী পালিত হবে ২৩ অক্টোবর সোমবার। পূজা চলবে ৫দিন। ২৪ অক্টোবর মঙ্গলবার বিজয়া দশমী পালিত হবে এবং বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসবের সমাপ্তি ঘটবে।

পানছড়ি উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিজয় কুমার দেব বলেন, উপজেলা মোট ১০ টি মন্দিরে পূজা উদযাপন করা হবে। তিনি মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঠিক রাখতে বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করেছেন । প্রতিটি মন্দিরে সার্বক্ষণিক সিসিটিভি ক্যামেরা লাগানোর কাজ চলছে। দূর্গা পূজায় যাতে কোন ধরণের অপ্রীতিকর কোন ঘটনা না ঘটে সে দিকে সকলের সতর্ক থাকার কথা বলা হয়েছে।

এই দিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা যায়, শারদীয় দুর্গাপূজা শান্তিপূর্ণ ভাবে সম্পন্ন করতে ও যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়ানোর জন্য খাগড়াছড়ির ৯টি উপজেলার প্রতিটি পূজা মন্ডপে পুলিশ -আনসারের পাশাপাশি মন্দির কমিটির স্বেচ্ছাসেবক কর্মীরা নিয়োজিত থাকবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.