দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

BREAKING NEWS

বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ে গোপনে শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগের অভিযোগ

0

স্টাফ রিপোর্টার :
জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ে গোপনে শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নিয়ামিত কমিটি বাতিল করার জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ময়মনসিংহ এর চেয়ারম্যান ও জামালপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন স্থানীয় শতাধিক শিক্ষানুরাগী ও শিক্ষার্থীর অভিবাবকগন। এ ছাড়াও শিক্ষক হাজিরা খাতা প্রধান শিক্ষক গুলজার হোসেন এর নিজের কাছে রেখে ছুটি না নিয়ে চিকিৎসার জন্য বিদেশ গমন করা নিয়ে শিক্ষক কর্মচারী ও এলাকায় ঁজনমনে ক্ষোভ বিরাজ করছে।
লিখিত অভিযোগে জানা গেছে,সরিষাবাড়ী উপজেলার বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের বিগত ২০২২ইং সালের ২২ ডিসেম্বর তারিখে প্রধান শিক্ষকের যোগসাজসে গোপনে গঠিত এডহক কমিটি ও মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ময়মনসিংহ এর চেয়ারম্যান বরাবর নিয়মিত কমিটি করার প্রস্তাব প্রেরণ করেন। যা বিদ্যালয়ের শিক্ষক, অভিভাবক, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ কে অবহিত না করে গোপনে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোজাম্মেল হক ও একাডেমিক সুপারভাইজার রুহুল আমীন বেগ যাহা বিধি বর্হিভ’ত কমিটি গঠন সম্পন্ন করেছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।এ নিয়ে বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলজার হোসেন এর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন এলাকার শিক্ষানুরাগীরা। প্রধান শিক্ষক গোলজার হোসেন ২০১৬ ইং সালে যোগদান করার পর থেকে তিনি বিভিন্ন অনিয়মে লিপ্ত রয়েছেন। এ বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ময়মনসিংহ এর চেয়ারম্যান বারবার মৌখিকভাবে/লিখিতভাবে অবগত করেন স্থানীয়রা। এলাকাবাসী আরোও উল্লেখ যে প্রধান শিক্ষক গোলজার হোসেন একজন জুনিয়র শরীরচর্চা শিক্ষক হিসেবে চাকুরীতে যোগদান করে পরবর্তীতে বি.পি.এড শিক্ষাগত যোগ্যতা অর্জন না করে পরবর্তীতে কিভাবে প্রধান শিক্ষক হয় তাহা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অডিট রিপোর্টে এ বিষয়ের উপর আপত্তি রয়েছে। প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দিনের পর দিন বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে অনুপস্থিত থেকেও মাসের পর মাস বেতন-ভাতা উত্তোলন করছেন। প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ঘটিত বিষয়ে সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে নিয়মিত কমিটি বাতিল পূর্বক তাহার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন ও অবৈধ পন্থায় অর্থেও বিনিময়ে নিয়োগকৃতদের বাতিলের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসীর পক্ষে অভিবাবক আমজাদ হোসেন। এ ছাড়াও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক-কর্মচারী হাজিরা খাতা নিজের কাছে গোপন রেখে গোপনে চাকুরীতে যোগদান করা শিক্ষক কর্মচারীদের স্কুলে না গিয়ে তাদের হাজিরা গোপন গ্রহন করছে। অপর দিকে শিক্ষকদেও হাজিরা খাতা না দিয়ে একটি মাষ্টার রোল এর মাধ্যমে হাজিরা দিচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে অনুপস্থিত থেকে ভারতে চিকিৎসা নিতে গেলেও কোন শিক্ষক কে লিখিত ভাবে দায়িত্ব প্রদানও করেনি। এ নিয়ে এলাকার সচেতন মহলের মাঝে চাপ্ াক্ষোভ বিরাজ করছে। এলাকাবাসী প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নিয়ম বর্হিভ’ত কর্মকান্ডের সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের আশুদৃষ্টি কামনা করেছেন।
এ বিষয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল বারেক জানান, প্রধান শিক্ষক গোলজার হোসেন ও তার কিছু অনুসারী নিয়ে দায়সারা ও মনগড়াভাবে সকলের অগোচরে শিক্ষক নিয়োগ ও কমিটি গঠন করায় শিক্ষক কর্মচারী নিয়োগ ও কমিটি বাতিল সহ তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহনের দাবী জানান তিনি।
জানতে চাইলে বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক কর্মচারী নিয়োগ করা হয়েছে কিনা জিজ্ঞাস্ াকরলে প্রধান শিক্ষক গোলজার হোসেন নিয়োগর বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোজাম্মেল হক বগারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মচারী নিয়োগ করা হয়েছে বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তিনি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.