দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

BREAKING NEWS

নাগরপুর-দেলদুয়ারে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও অবহেলিতদের পাশে থাকে এমপি টিটু

0

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নাগরপুর-দেলদুয়ারে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও অবহেলিতদের পাশে থাকে এমপি টিটু
জাকিরুল ইসলাম উইলিয়াম নাগরপুরে সাধারণের খোঁজ রাখেন
এমপি প্রার্থী হিসাবে আ’লীগের মনোনয়ন বঞ্চিতরা ঈদ-উৎসব-পূজায় পাশে নেই, নির্বাচন এলে আসে, সারা বছর দেখা মেলে না, মন্তব্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের ঈদ-উৎসব-পূজা-ধর্মীয়, শিক্ষা-প্রাতিষ্ঠাণিক আয়োজনেও অবহেলিতদের পাশে থাকেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী এমপি টিটু।

নাগরপুরে সাধারণ মানুষের খোঁজ রাখেন জাকিরুল ইসলাম উইলিয়াম।

নাগরপুর স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে মুঠোফোনে আলাপচারিতায় জানা যায় সার্বিক পরিস্থিতি।

একান্ত সাক্ষাৎকারে জানা যায় নাগরপুরের বাস্তবিত্র।

নাগরপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক মহিলা
ভাইস চেয়ারম্যান ছামিনা বেগম শিপ্রা জানান,
প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু দায়িত্ব পালন করছেন। আগামী দিনে কি হবে জানিনা। তবে যোগ্যরা নেতৃত্ব পাক।

বেকরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: শওকত হোসেন জানান, প্রতিমন্ত্রী টিটু আমাদের খোঁজ রাখেন। কিন্তু তারানা হালিম এবং উইলিয়াম খোঁজ রাখেন না বলে জানান এই জনপ্রতিনিধি।

ভাদ্রা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: শওকত আলী জানান, এমপি টিটু সাহেব কাজ করে যাচ্ছেন। তবে জাকিরুল ইসলাম উইলিয়াম আমাদের খোঁজ-খবর রাখেন।

দপ্তিয়র ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এম, ফিরোজ সিদ্দিকী বলেন, প্রতিমন্ত্রী হিসেবে এলাকায় আসার সুযোগ কম পায়।

মাহমুদনগর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো: জজ কামাল জানান, নির্বাচন আসলে এমপি প্রার্থীরা আসে।
বাকী দিনগুলোতে তাদের আর দেখা মিলেনা।

মোকনা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: শরিফুল ইসলাম জানান, নাগরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জাকিরুল ইসলাম ঈদ উৎসবে, পূজায়, নানা অনুষ্ঠানে ও তৃণমূল নেতা-কর্মীদের সাথে যোগাযোগ ও যথাসাধ্য সহযোগিতা করে থাকেন।

নাগরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক মো:
কুদরত আলী জানান, সরকারি পদক্ষেপে সর্বত্র উন্নয়ন অব্যাহত রয়েছে। নাগরপুর সাড়ে ৩হাজার কোটি টাকার কাজ চলমান।
তিনি জানান, এমপি মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নির্বাচনে
আসে দৌঁড়-ঝাপ পারে। তারপর আর খবর থাকেনা। এরা অতিথি পাখি। এখন তাদের ব্যক্তিগত ব্যবসায়িক কাজে ব্যস্ত। ঈদ-পূজায় বা বিশেষ দিনগুলোতে তাদের পক্ষ থেকে অবহেলিত জনসাধারণ বা তৃণমূল নেতা-কর্মীরা পায়না কিছুই।
শুধু ভোটের বেলায় কদর বাড়ে। তৃণমূল মূল্যায়িত না হলে আগামী দিনগুলো বিফলতার প্রহর গুনতে হবে।

সহবতপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো: তোফায়েল মোল্লা জানান, স্বাধীন বাংলাদেশের আমরা নাগরিক। কিন্তু সরেজমিনে এসে দেখে যান যে, জনপ্রতিনিধি হিসেবে যারা দায়িত্বে আছে সর্বোপরি বিশেষ দিনগুলোতে কতটা সহায়তা পায় দরিদ্র জনগণ যারা রয়েছে। তেমনি দলীয় নেতা-কর্মীরা।

এদিকে, দেলদুয়ার উপজেলা চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান কে প্রশ্নকালে জানান, এমপি প্রার্থীরা যারা নির্বাচন এলে মাঠে থাকে, জনগণের কথা বলে, বিশেষ দিনগুলোতে যারা অবহেলিত হিসাবে প্রাপ্য, তারা কিছু পাচ্ছে কিনা আমার জানা নাই।

পাথরাইল ইউপি চেয়ারম্যান রাম প্রসাদ সরকার জানান, বিশেষ দিন ঈদের জন্য বড়দের তরফ থেকে এখনও দান-দক্ষিনা পাওয়ার খবর পাই নাই।
খোঁজ-খবর নাই।

দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক আলহাজ্ব লায়ন শিবলী সাদিক জানান, এমপিরা বা যারা এমপি প্রার্থী হয়, তারা সাধারণ মানুষের জন্য কি দেয় বা দিচ্ছে বিশেষ দিনগুলোতে বা সাধারণ মানুষের খোঁজ-খবর কতটুকু রাখে তা আমার জানা নাই।

জনপ্রতিনিধিরা সৌজন্য সাক্ষাৎ, দেখভাল করবে জনসাধারণের, অবকাঠামো উন্নয়ন ও বিশেষ দিনগুলোতে খেয়াল রাখবে, এটাই প্রত্যাশা মাফিক পূরণের জন্য তাদের কাম্য বলে জানা গেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.