দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

মহার্ঘ ভাতাসহ পাঁচ দফা দাবি সরকারি কর্মচারীদের

0

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি কারণে ৪০ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা প্রদান এবং নবম বেতন কমিশন গঠনসহ পাঁচ দফা দাবিতে সংবাদ সন্মেলন করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ।

শনিবার সকালে রাজধানী সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের মহাসচিব নোমানুজ্জামান আল আজাদ লিখিত বক্তব্যে পাঁচ দফা দাবি উপস্থাপন করে বলেন, গণকর্মচারীরা যেহেতু উন্নয়নের প্রধান হাতিয়ার সেহেতু তাদের ন্যায়সঙ্গত অধিকার নিশ্চিত করা সরকারের দায়িত্ব।

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা মোতাবেক দেশব্যাপী ভয়াবহ করেনায় মৃত্যুবরণকারীদের পরিবারের অনুকূলে আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য সরকারের সদয় দৃষ্টি অকর্ষণ করছি।

আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, আমাদের উত্থাপিত দাবিসমূহের বিষয়ে কর্মচারীদের মনের ক্ষোভ ও হতাশা নিরসনের লক্ষ্যে আগামী ১৫ নভেম্বরের মধ্যে পাঁচ দফা বাস্তবায়নে সরকার দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ না নিলে ১২ লাখ গণকর্মচারীর পক্ষে আন্দোলনের পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।
সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের পাঁচ দাবির মধ্যে রয়েছে-

১. নবম বেতন কমিশন গঠন, বিদ্যমান বেতন কাঠামোতে ২০টি গ্রেডকে ১০টি গ্রেডে রূপান্তর এবং অন্তর্বর্তীব্যবস্থায় ৪০ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা প্রদান।

২. সচিবালয়ের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে সমকাজে সমমর্যাদা ও পদবী পরিবর্তন ও অভিন্ন নিয়োগবিধি প্রণয়ন।

৩. টাইমস্কেল সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহাল, আগের মতো শতভাগ পেনশন প্রদানসহ পেনশন গ্র্যাচ্যুইটির হার এক টাকায় ৫০০ টাকা নির্ধারণ।
৪. বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট মূল বেতনের ২০ শতাংশ প্রদান।

৫. দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে ন্যায্যমূল্যে মানসম্মত রেশন প্রদান, পাহাড়ি, পর্যটন ও দুর্যোগ ভাতা প্রদান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন, মহাসচিব নোমানুজ্জামান আল আজাদ, অতিরিক্ত মহাসচিব বদরুল আলম সবুজ, রোকনুজ্জামান, বেলাল হোসেন, কার্যকরী সভাপতি সৈয়দ সারোয়ার হোসেন, এস এম শফিকুর রহমান রাজু, সহসভাপতি এম এ আউয়াল, মো. মানিক মিয়া, মো. রফিকুল আলম, মো. মানিক মৃধা, মো. কামরুল ইসলাম, যুগ্ম মহাসচিব নজরুল ইসলাম, মৃধা মো. নাছির উদ্দিন, সাংগঠনিক সচিব কামাল হোসেন শিকদার, মো. হুমায়ুন কবির, সাংগঠনিক সচিব মো. আলী, প্রচার সচিব মোজাম্মেল হক, সৈয়দ আজগর আলী, যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন বাবু, কার্যনির্বাহী সদস্য আরমান মোল্লা, মো. আব্দুল আহাদ শিপন, মো. জিয়াউল হক জিয়া, মো. শামসুদ্দোজা, মো. সামসুদ তৌহিদ, মো. সাইদুল করিম, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, মো. নুর হোসেন, মো. জাকির হোসেন প্রমুখ।

এছাড়া গণপূর্ত কর্মচারী ইউনিয়ন, বিপিডিসি, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ, ডিপিডিসি, জাতীয় জাদুঘর, বিএডিসি, গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ, সোনালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, রাজউক, জীবন বিমা করপোরেশন, শিল্পকলা একাডেমি, বাংলা একাডেমি, ঢাকা ওয়াসা, সিটি করপোরেশনসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.