দৈনিক নবতান
জনতার সংসদ

গোপালপুরে ৮ মামলায় ১০ হেরোইন ও ইয়াবা ব্যবসায়ীর জেল

0

মো. সেলিম হোসেন, গোপালপুর-টাঙ্গাইল।
অবৈধভাবে নিজ হেফাজতে রেখে মাদকদ্রব্য হেরোইন ও ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রয় করার অপরাধে টাঙ্গাইলের গোপালপুর থানায় গত জুলাই মাসে ৮ মাদক মামলায় ১০জন হেরোইন ও ইয়াবা ব্যবসায়ীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। মাসের বিভিন্ন সময় গোপালপুর থানা এলাকায় মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা কালীন সময় তাদেরকে গ্রেফতার করেন উত্তর টাঙ্গাইলের জেলা গোয়েন্দা শাখা।
মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ৪জুলাই উপজেলার কড়িয়াটা গ্রামের মুন্সি বাদল মেম্বারের বসতবাড়ীর উঠানে ইয়াবা ট্যাবলেট ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ডিবির এসআই রিপন কুমার দাস ইয়াবা ব্যবসায়ী ফিরোজকে (২৮) গ্রেফতার করেন। সে ধনবাড়ী থানাধীন পাঁচপটল গ্রামের রেজাউল হকের ছেলে। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ১শ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। ৭ জুলাই উপজেলার চরনলহারা বৈরান নদীর পশ্চিম পাশে বটগাছের নিচে ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ডিবির এসআই জাহাঙ্গীর আলম ইয়াবা ব্যবসায়ী রুবেলকে (৩০) গ্রেফতার করেন। সে পৌর শহরের নন্দনপুর এলাকার শাহ আলমের ছেলে। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ৫০ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়।


৯ জুলাই উপজেলার কড়িয়াটা গ্রামের রিপনের বসতবাড়ীর পাশে ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ডিবির এসআই মনির হোসেন ইয়াবা ব্যবসায়ী জাহিদুল ইসলাম এরশাদ (৩৮) ও রিপন মিয়াকে (৪১) গ্রেফতার করেন। জাহিদুল সরিষাবাড়ী থানার কাবারিয়াবাড়ী গ্রামের শাহেদ আলীর ছেলে ও রিপন গোপালপুর উপজেলার কড়িয়াটা গ্রামের মৃত তমিজ উদ্দিন ভোলার ছেলে। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে ১শত ৪০পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। ২০ জুলাই উপজেলার বসুবাড়ী টু হাজরাবাড়ী পাকা রাস্তার উপর হেরোইন ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ডিবির এসআই এসএম কাওসার সুলতান হেরোইন ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেনকে (৪২) গ্রেফতার করেন। সে হাজরাবাড়ী (আটাপাড়া) গ্রামের মৃত আজাহার আলীর ছেলে। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ২০ গ্রাম হেরোইন জব্দ করা হয়। ২২ জুলাই উপজেলার হাদিরা পূর্বপাড়া ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ডিবির এসআই এসএম কাওসার সুলতান ইয়াবা ব্যবসায়ী শিপনকে (২৩) গ্রেফতার করেন। সে হাদিরা পূর্বপাড়া রফিক উদ্দিনের ছেলে। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ১শত পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। ২৩ জুলাই উপজেলার নবগ্রাম বাজারে হেরোইন ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ডিবির এসআই আবেদ আলী হেরোইন ব্যবসায়ী কায়কোবাদকে (৪২) গ্রেফতার করেন। সে ঝাওয়াইল গ্রামের মৃত মীর হোসেনের ছেলে। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ৩০ গ্রাম হেরোইন জব্দ করা হয়।
২৫ জুলাই উপজেলার বড়মা উত্তরপাড়া আঃ আজিজের বসতবাড়ির উঠানে হেরোইন ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ডিবির এসআই এসএম কাওছার সুলতান হেরোইন ব্যবসায়ী কবির হোসেনকে (৩৬) গ্রেফতার করেন। সে বড়মা গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ৫০ গ্রাম হেরোইন জব্দ করা হয়। ২৫ জুলাই পৌর শহরের কাঁচা বাজারের এক গলিতে মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের সময় ডিবির এসআই মিজানুর রহমান হেরোইন ব্যবসায়ী বেলাল হোসেনকে (২৭) গ্রেফতার করেন। সে আভূঙ্গি চরপাড়া গ্রামের আমান আলীর ছেলে। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ১শ ৪৫ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়। জব্দকৃত মোট ১শত গ্রাম হেরোইনের আনুমানিক বাজার মূল্য ১০ লাখ ও ৫শত ৮৫ পিস ইয়াবার মূল্য ১ লক্ষ ৭৫ হাজার ৫শত টাকা মাত্র।
গোপালপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মোশারফ হোসেন জানান, এসব মাদক ব্যবসায়ীরা পাইকারি ধরে হেরোইন ও ইয়াবা ক্রয় করে বেশি দামে খুচরা বিক্রয় করে থাকে। তারা অবৈধভাবে হেরোইন ও ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয় করায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে নিয়মিত মামলা করে আসামীদেরকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ উপজেলাকে মাদকমুক্ত করতে এ অভিযান অব্যহত থাকবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.